ঠান্ডা মাথায় বিনিয়োগ করুন

;

বিনিয়োগকারীদের গুজবে কান না দিতে এবং ঠান্ডা মাথায় বিনিয়োগ সিদ্ধান্ত নেয়ার পরামর্শ বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম। গতকাল শনিবার ‘বিনিয়োগ শিক্ষা কনফারেন্স ২০২২’-এ সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।;

অনুষ্ঠানের ‘স্টক মার্কেট ইনভেস্টমেন্ট: ওয়েস টু সুপিরিয়র রিটার্ন জেনারেট’ মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিএসইসির সাবেক কমিশনার আরিফ খান। অন্যদিকে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ রেজাউল করিম ‘দ্য স্মার্ট অ্যান্ড ইন্টেলিজেন্ট ইনভেস্টর’বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

জেনে বুঝে বিনিয়োগের কথা উল্লেখ করে শিবলী রুবাইয়াত বলেন, যারা বেশি ঝুকি নিতে চান না, তারা মিউচুয়াল ফান্ডে এবং বন্ড মার্কেটে বিনিয়োগ করতে পারেন। বিনিয়োগের আগে এ সম্পর্কে বেসিক জ্ঞান অর্জন করতে হবে, স্মার্ট বিনিয়োগকারী হতে হবে। এসময় তিনি দেশ পরিচালনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রজ্ঞার প্রশংসা করেন এবং দেশের অর্থনীতি নিয়ে অপ্রয়োজনীয়’ ভীতি সৃষ্টির সমালোচনা করেন।;

পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের নিরাপদ ব্যবস্থাপনার আশাবাদ ব্যক্ত করে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেন, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের ধৈর্য্য ধারণ করতে এবং শিখতে হবে, তবেই লাভবান হওয়া যাবে। আর্থিক স্বস্তি এবং সঞ্চয়ের জন্যই বিনিয়োগ মন্তব্যে করে কে এম খালিদ বলেন সুতরাং বিনিয়োগের সুরক্ষা প্রয়োজন।

বিএসইসির কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, আমরা প্রায় দেখি গুজবের ভিত্তিতে বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নেন বিনিয়োগকারীরা। এটি বিনিয়োগবান্ধব কোন সিদ্ধান্ত না। আমাদেরকে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সঠিক তথ্য বিচার-বিশ্লেষন করতে হবে। ;দেশে বিপুল বিনিয়োগের সম্ভাবনা আছে জানিয়ে শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, এটাকে কিভাবে কাজে লাগানো যায়, তা নিয়ে আমরা উদগ্রীব হয়ে আছি। এজন্য আগামিতে বিভাগীয় শহরের বাহিরেও বিনিয়োগ শিক্ষা কার্যক্রম করার লক্ষে কাজ করছি।

বিএসইসি নির্বাহি পরিচালক ও মূখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, বিনিয়োগকারীরা প্রতিদিন না হলেও ১০০ বার মনিটরে প্রাইস কত গেল, তা দেখে। কিন্তু আপনি যেহেতু বিনিয়োগ করেছেন, সেহেতু ৬ মাস থেকে ১ বছর পর দর কোথায় গেল দেখবেন। প্রতিদিন প্রাইস দেখার দরকার নেই। এমন দেখতে গেলে আনরিয়েলাইজড দেখে মন খারাপ হবে। ফলে রাতে ঘুম কম হবে। যেহেতু জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের জন্য বিনিয়োগ করেছেন, সেখানে যদি প্রতিদিন প্রাইস দেখতে গিয়ে ঘুম না হয়, তাহলেতো হলো না। তাই প্রতিদিন প্রাইস দেখার দরকার নাই।;

পাগল হয়ে বিনিয়োগ করা যাবে না উল্লেখ্য করে মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, যেদিন মাথা খুব ঠান্ডা থাকবে, সেদিন বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নেবেন। যেদিন মাথা ঠিক থাকবে না, সেদিন বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়ার দরকার নেই। তবে আমাদের দেশের বিনিয়োগকারীরা ওয়ার্ক ষ্টেশনের সামনে দাঁড়িয়ে থেকে ট্রেডারের হাত সরিয়ে দিয়ে নিজেরাই লেনদেন করতে চায়।

বিনিয়োগকারীদেরকে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখতে হয় ;জানিয়ে রেজাউল করিম বলেন, এর মধ্যে একটি দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগ করা। স্বল্পমেয়াদির থেকে দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগ লাভজনক। যখন সবাই বিক্রি করতে থাকে, তখন বাজার পতন হতে থাকে। ওই সময় হলো বিনিয়োগের সবচেয়ে ভালো সময়। যেটা এখন চলছে। এখন বাজার নিম্নমূখী আছে।;

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র ইকরামুল হক টিটু, ময়মনসিংহের চেম্বার অ্যান্ড কমার্স ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি আমিনুল হক শামীম, অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের যুগ্মসচিব কামরুল হক মারুফ, ময়মনসিংহের উপ-মহা পুলিশ পরিদর্শক দেবদাস ভট্টাচার্য, ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার মো: শফিকুর রেজা বিশ্বাস।;
অনুষ্ঠানটিতে প্যানেল আলোচনা ও প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ নেন ডিএসইসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তারিক আমিন ভূঁইয়া, রশিদ ইনভেস্টমেন্ট সার্ভিসেসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আহমেদ রশিদ লালী, ডিবিএর প্রেসিডেন্ট রিচার্ড ডি রোজারিও, বিএএসএমর মহাপরিচালক ড. তৌফিক আহমদ চৌধুরী, বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক মো. সাইফুর রহমান, বিএমবিএর প্রেসিডেন্ট মো. ছায়েদুর রহমান।

মন্তব্য করুন






আর্কাইভ