পায়ুপথে স্বর্ণ এনে ধরা পড়লেন রফিকুল

পায়ুপথে ৩৭ লাখ টাকার স্বর্ণ এনে শুল্ক গোয়েন্দাদের হাতে ধরা পড়লেন ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার রফিকুল ইসলাম (৪৭)। গতকাল মঙ্গলবার সকালে চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের হাতে ধরা পড়েন এই প্রবাসী।

আটক রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দিয়ে পতেঙ্গা থানায় সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর চট্টগ্রামের উপ-পরিচালক এ কে এম সুলতান মাহমুদ। এদিকে দুবাই থেকে বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সের বিজি-১৪৮ ফ্লাইটটি মঙ্গলবার সকাল ৬টা ৫৫ মিনিটে আসার কথা থাকলেও সেটি ৭টা ২০ মিনিটে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

মঙ্গলবার সকালে দুবাই থেকে আসা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিজি-১৪৮ ফ্লাইটে চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে আসেন রফিকুল ইসলাম। এরপর তিনি কাস্টমস কর্মকর্তাদের কাছে দুটি স্বর্ণের বার আনার ঘোষণা দিয়ে ৪০ হাজার টাকা শুল্ক কর পরিশোধ করেন। কিন্তু কাস্টমস হল পার হওয়ার সময় তার গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হওয়ায় এনএসআই ও শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তারা চ্যালেঞ্জ করেন। এক পর্যায়ে আর্চওয়ে দিয়ে ওই যাত্রীকে হাঁটানো হলে শরীরে ধাতব বস্তুর অস্তিত্ব পাওয়া যায়। এসময় রফিকুল তার মলদ্বারে দুটি স্বর্ণের বার থাকার কথা স্বীকার করেন। পরে ওয়াশরুমে গিয়ে তিনি সেগুলো বের করে দেন।

এ ব্যাপারে সুলতান মাহমুদ বলেন, আটক যাত্রী রফিকুল চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ১৯ জুলাই পর্যন্ত ১০ বার বিদেশে যাতায়াত করেছেন। এর আগেও তিনি স্বর্ণ এনেছিলেন। সর্বশেষ ৭ জুন স্বর্ণবার ও অলংকার আনার সময় তাকে সতর্ক করা হয়। আরও বলেন, রফিকুলের কাছে ৪৬৬ গ্রাম ওজনের চারটি স্বর্ণের বার, ২৪ ক্যারেটের ১০০ গ্রাম স্বর্ণালঙ্কার, ১৫ কার্টন সিগারেট, কসমেটিকস, চকলেট ও ফুড আইটেম পাওয়া যায়। এসবের বাজারমূল্য ৩৮ লাখ ৬৫ হাজার টাকা।

মন্তব্য করুন






আর্কাইভ