শিক্ষায় বরাদ্দের হার কমায় শিক্ষকদের ক্ষোভ

;

প্রস্তাবিত বাজেটে শিক্ষা খাতে টাকার অংকে গত অর্থবছরের তুলনায় বরাদ্দ কিছুটা বাড়লেও আনুপাতিক হারে কমেছে। এতে মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণের দিকনির্দেশনা নেই। এনিয়ে ক্ষোভ জানিয়েছেন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির (বিটিএ) নেতারা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে সংগঠনটির এ সংক্রান্ত জরুরি সভা শেষে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে ক্ষোভ জানানো হয়।

সভায় বিটিএ সভাপতি অধ্যক্ষ মো. বজলুর রহমান মিয়া সভাপতিত্ব করেন। সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক শেখ কাওছার আহমেদ। সেখানে বক্তৃতা করেন সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ মো. আবুল কাশেম, সহ-সভাপতি আলী আসগর হাওলাদার, বেগম নূরুন্নাহার, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবু জামিল মো. সেলিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইকবাল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন প্রমুখ।

এতে বলা হয়, ২০২২-২৩ অর্থবছরে জাতীয় সংসদে উত্থাপিত বাজেট পর্যালোচনা করেছেন শিক্ষকরা। এতে জীবন-জীবিকা সংরক্ষণ, অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি, ধরিত্রিকে সুরক্ষা, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলা, শান্তি-সম্প্রীতি ও সুশাসন নিশ্চিত এবং উন্নয়ন লক্ষ্যসমূহ গুরুত্বসহকারে বিবেচনাসহ রূপকল্প-২০৪১-এর ওপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হলেও শিক্ষা ক্ষেত্রে গুরুত্ব দেওয়া হয়নি।

নেতারা বলেন, ইউনেসকো ও আইএলও-এর সুপারিশ ও আন্তর্জাতিক মান অনুযায়ী শিক্ষাখাতে জাতীয় বাজেটের ২০ শতাংশ বা জিডিপির ৬ শতাংশ বরাদ্দ রাখা প্রয়োজন। বাজেটে শিক্ষা খাতে ২০২১-২০২২ অর্থবছরের চেয়ে টাকার অংকে বরাদ্দ কিছুটা বাড়লেও মোট বাজেট ও জিডিপির আনুপাতিক হারে কম হওয়ায় এবং মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণের দিকনির্দেশনা না থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

মন্তব্য করুন






আর্কাইভ